Server sync... Block time in database: 1615391772, server time: 1665077249, offset: 49685477

আমাদের ইউজার নেম এর পাশের সংখ্যা অর্থাৎ রেপুটেশন (Reputaion) এর বিস্তারিত খুটিনাটি [benificiary ১০% @shy-fox]


ভূমিকাঃ

আমরা যারা স্টিম ব্লকচেইনে কাজ করি এখানে স্টিমিট (steemit.com)এ আমাদের নামের পাশে যে সংখ্যাটি লিখা থাকে সেটি হচ্ছে রেপুটেশন (Reputaion)। এই রেপুটেশন কি, রেপুটেশন কিভাবে বাড়ে, কিভাবে কমে, কিভাবে রেপুটেশন হিসাব করতে হয়, কোন কোন বিষয়ের উপর নির্ভর করে না, রেপুটেশন এর মান এর অর্থ, আপনি কিভাবে আপনার রেপুটেশন বাড়াতে পারবেন, এবং সর্বোপরি রেপুটেশন এর গুরুত্ব নিয়ে আলোচনা করব আজকের পোস্টে।

Thumbnails.jpg


রেপুটেশনের শুরুঃ

আমরা যখন একটা নতুন অ্যাকাউন্ট করি তখন আমাদের নামের পাশে যে সংখ্যাটি লিখা থাকে সেটি হচ্ছে ২৫। তাহলে সহজেই বোঝা যাচ্ছে, আমাদের রেপুটেশন শুরু হয় 25 দিয়ে। কারো রেপুটেশন ২৫ এর কম হবে না যদি সে ফ্ল্যাগ বা ডাউনলোড পায়।

রেপুটেশন কিভাবে বাড়বেঃ

রেপুটেশন স্টিমিট প্লাটফর্মে একটা ইন্ডিকেটর যেটা দিয়ে একটা ব্যক্তির এই প্লাটফর্মে কন্ট্রিবিউশন কে খুব সহজে চেক করে ফেলা যায়। আর এ কারণেই এই ইন্ডিকেটরটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারো রেপুটেশন দেখে বোঝা যায় স্টিমিট প্লাটফর্মে তার অবদান কতোটুকু।

রেপুটেশন কেবলমাত্র ভোট পাওয়ার উপর বৃদ্ধি পেয়ে থাকে। আমরা জানি অনেকেই অনেক বেশি পরিমাণ স্টিম ইনভেস্ট করে এখানে কাজ করে থাকেন কিন্তু রেপুটেশন এর ক্ষেত্রে এর কোনো ভূমিকা নেই। যে যত স্টিম পাওয়ার অর্জন করুক না কেন সেটা রেপুটেশনের ক্ষেত্রে কোনো ভূমিকা রাখবে না। রেপুটেশন কেবলমাত্র বৃদ্ধি পাবে যখন কেউ পোস্ট কিংবা কমেন্ট করলে সেখানে ভোট পাবে।

যত বেশি পরিমাণে ভোট পাবে তার রেপুটেশন ততো বেশি পরিমাণে বাড়তে থাকবে। তাহলে রেপুটেশন বৃদ্ধির ক্ষেত্রে অথর (লেখক) হওয়া জরুরী এবং সেই অথরের পোস্টে ভোট পাওয়াটা জরুরী। কার কত বেশি পরিমাণে এসপি জমা থাকলো সেটা কোন ভূমিকা রাখবে না।

কিভাবে রেপুটেশন কমবেঃ

যখন আমরা কোন পোস্ট করব বা কমেন্ট করব তখন সেই পোস্ট বা কমেন্টে যদি ডাউনলোড পেয়ে থাকি তাহলে রেপুটেশন কমবে। অর্থাৎ এক্ষেত্রেও আমাকে অথর হতে হবে এবং আমার পোস্টে যখন ডাউনভোট আসবে তখন আমার রেপুটেশন কমতে পারে। তবে এক্ষেত্রে দুটি ব্যতিক্রম রয়েছে।

একটি হলঃ যাদের রেপুটেশন স্কোর মাইনাস বা শূন্যের নিচে তাদের ডাউনভোটে অন্য কারো রেপুটেশন এর কোনো প্রভাব পড়বে না।

দ্বিতীয়টি হলঃ যিনি ডাউনভোট দিবেন তার রেপুটেশন যদি অথর ব্যক্তির রেপুটেশন এর চেয়ে কম হয়ে থাকে তাহলে তার ডাউনলোডের জন্য ওই ব্যক্তির রেপুটেশন এর কোনো প্রভাব পড়বে না। যদিও ঐ ব্যক্তির ডাউনভোটের জন্য হয়তোবা রিওয়ার্ড কমে যাবে কিন্তু রেপুটেশন কমবেনা। কোন ব্যক্তি কর্তৃক কাউকে ডাউনলোড দিলে সেই ব্যক্তির রেপুটেশন কমবে না যদি তার রেপুটেশন কম হয় উক্ত ব্যাক্তির চেয়ে। এটা আসলে এবিউস রোধ করার জন্য করা হয়েছে।

যেমন উদাহরণস্বরূপ আমারে রেপুটেশন যদি ৭০ হয় আর আমার পোস্টে কোন ব্যক্তি যদি অনেক বড় একটা ডাউনভোট দেয় যেমন @shy-fox (২৫) বা @amarbanglablog (৫৭) তাহলে এদের ডাউনভোটে আমার ব্যক্তিগত রেপুটেশন এ কোনো প্রভাব পড়বে না। হ্যাঁ ডাউনলোডের জন্য আমার পটেনশিয়াল রিওয়ার্ড কমে যাবে কিন্তু রেপুটেশন এর কোনো প্রভাব পড়বে না। তাই রেপুটেশনে ডাউনভোট প্রভাব ফেলবে কেবল যাদের রেপুটেশন আমার চেয়ে বেশি। আশা করি বিষয়টি বুঝা গেছে।

রেপুটেশন কোন কোন বিষয়ের উপর নির্ভর করেঃ

রেপুটেশন কেবলমাত্র ভোটের উপর নির্ভর করে থাকে। অন্য কোন কিছুর উপর নির্ভর করে না তবে আমরা যখন কোন পোস্টে রিওয়ার্ড ভাগ করি কিউরেটর এবং অথর এর মধ্যে তখন সেই রিওয়ার্ড ভাগাভাগির ক্ষেত্রে কতগুলো বিষয় ভূমিকা রাখে তার মধ্যে কিউরেটরের রেপুটেশন একটি। অর্থাৎ কোন একটা পোস্টের পটেনশিয়াল রিওয়ার্ড ভাগ হওয়ার ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো ভূমিকা রাখে তার মধ্যে ভোট দেওয়ার টাইমিং, কিউরেটর এর রেপুটেশন, ব্যবহারকারীর স্টিম পাওয়ার, এবং ভোটিং পাওয়ার কিছু ফ্যাক্টর।

রেপুটেশন কিভাবে হিসাব করা হয়ঃ

এটি হচ্ছে সবার জানার এবং আগ্রহের বিষয়। তবে এখানে একটা বিষয় মনে রাখা জরুরী যে, আমরা আমাদের নামের পাশে যেই নাম্বার বা সংখ্যাটি দেখতে পাই সেই সংখ্যাটি আসলে আমাদের প্রকৃত রেপুটেশন নয়। রেপুটেশন এর যে প্রকৃত মান সেটি আসলে কোটি বা হাজার কোটির মত বড় বড় সংখ্যা। এই সংখ্যাগুলোকে সহজীকরণ করে একটা ছোট সংখ্যায় রূপান্তর করে দেখানো হয়।

তার মানে আমাদের নামের পাশে যে রেপুটেশন এটা আসলে আমাদের প্রকৃত রেপুটেশন মান নয়। শুধুমাত্র সহজ করে বিষয়টি উপস্থাপন করার জন্য একটা গণিতের মাধ্যমে সহজীকরণ করে দেখানো হয়। প্রকৃত রেপুটেশন থেকে কিভাবে রেপুটেশন সহজীকরণ করে দেখানো যায় সেটা নিচে শেয়ার করে দিচ্ছি।

https://steemd.com/@engrsayful সাইটে গিয়ে আমার প্রকৃত রেপুটেশন স্কোর নিলাম। আপনারাও চাইলে আপনাদের ইউজার নেম দিয়ে আপনাদের স্কোর দেখতে পারেন।
আমার প্রকৃত রেপুটেশন হলঃ ১১১, ৯৯৭, ১৯৩, ২৮৮, ০১৯
অর্থাৎ ১১১ ট্রিলিয়ন এর উপরে। প্রায় ১১২ ট্রিলিয়ন।

1.png


এখানে থেকে সহজীকৃত মান পেতে হলেঃ
চার ধাপঃ লগ করে, ৯ বিয়োগ, তারপর ৯ দ্বারা গুণ এবং সর্বশেষ ২৫ যোগ।

Log (১১১, ৯৯৭, ১৯৩, ২৮৮, ০১৯) = ১৪.০৪৯২

১৪.০৪৯২-৯ = ৫.০৪৯২

৫.০৪৯২*৯ = ৪৫.৪৪২৮

৪৫.৪৪২৮+২৫ = ৭০.৪৪

যা আমার নামের পাশে সহজীকৃত রেপুটেশন। এখানে দশমিক দেখানো হয় না, তাই ৭০ দেখতে পাচ্ছেন।

2.png


এভাবে আপনিও আপনারটা মিলিয়ে নিতে পারেন।

রেপুটেশন এক মানের চেয়ে আরেক মান কত ভালঃ

এখানে একটি খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সবার জানা জরুরী তা হল, এক রেপুটেশন এর চেয়ে আরেক রেপুটেশন স্কোর কত গুণ বেশি ভালো বা কত বেশি মর্যাদাবান। এক্ষেত্রে দুটি থিওরি পাওয়া যায়।

একটি থিওরি বলছে এক রেপুটেশন হতে আরেকটি ১.৩ গুন বেশি। যেমন ৬১ হতে ৬২ রেপুটেশন ১.৩ গুন বেশি ভুমিকা রেখেছে। আমি এটার সাথে ব্যাক্তিগতভাবে একমত নই।

আরেক জায়গায় বলা হচ্ছে হচ্ছে 10 গুণ বেশি। যেহেতু এটা লগারিদম এর ভিত্তি। তাই একটা হতে আরেকটা ১০ গুন বেশি। যেমন ২৫ হতে ২৬ দশ গুন। তার মানে ২৫ থেকে ৩০ হতে হলে ১০,০০০ গুণ বেশি কাজ করতে হবে। আমি এটার সাথে তীব্র ভিন্নমত পোষন করি। এটা অসম্ভব ব্যাপার মনে হয় হয় আমার কাছে।
যদিও বিষয়টা ভূমিকম্প মাপার রিক্টার স্কেল এর মত। আপনারা জানেন, রিক্টার স্কেল এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যে, ৬ মাত্রার ভূমিকম্পের চেয়ে ৭ মাত্রার ভুমিকম্প ৩২ গুণ বেশি শক্তিশালী। আমরা শুধু শুনছি ৬ আর ৭। তাহলে বুঝতেই পারছেন, ৬ হতে ৮ মাত্রার ভুমিকম্প ৩২*৩২ = ১০২৪ গুণ (জি হ্যাঁ, ১০২৪ গুণ) শক্তিশালী। আমরা হয়ত ভাবছি বিষয়টা কেবল ৬ আর ৮ মাত্র দুই এর ব্যাপার। আসলে লগারিদম এর ভিত্তি এমনই।

তবে যারা বলেন রেপুটেশন একটার চেয়ে আরেকটা কত গুণ এটা বুঝার ক্ষেত্রে সহজীকৃত মান না দেখে প্রকৃত মান দেখা জরুরী। চলুন প্রকৃত মান দেখে নেই।

Steemit reputation table.jpg

ছবির উৎস
উপরের ক্যালকুলেশনে আমরা দেখতে পেয়েছি লগারিদম করার পরেও এটাকে সহজীকরণ করে দেখানো হয়েছে তাই এটা একেবারে কাঁটায় কাঁটায় লগারিদম কে সাপোর্ট করছে না কারন এরপর আমরা কিছু যোগ বিয়োগ গুণ করেছি সহজ একটা মান পাওয়ার জন্য। তাই র বা প্রকৃত রেপুটেশন দেখা জরুরী। যদি রেপুটেশন এর উপরের তালিকাটি খেয়াল করি তাহলে বিষয়টি আমাদের কাছে অনেকটাই স্পষ্ট হয়ে উঠবে। সেখানে প্রত্যেকটা রেপুটেশন স্কোর এর জন্য মূল মান দেখানো হয়েছে সীমা সহ। আমরা খেয়াল করলে দেখতে পারব যে 10 কম বা বেশি রেপুটেশন এর জন্য রেপুটেশন সেটা আসল মান দশগুণ কম বা বেশি। যেমন উদাহরণস্বরূপঃ ৩৫ এর মূল মান যেখানে সর্বোচ্চ তার চেয়ে ঠিক ১০ গুণ বেশি মান হচ্ছে ৪৫ এর সর্বনিন্ম। এরকম সবগুলোতে।

এখান থেকে এই বিষয়টা সহজেই ক্লিয়ার হওয়া যাচ্ছে যে, রেপুটেশন আসলে এক মান এর চেয়ে আরেক মান দশগুণ বেশি নয় বরং ১০ বেশি এর জন্য ১০ গুণ বেশি। উদাহরনস্বরূপঃ ৫০ রেপুটেশনের চেয়ে ৬০ রেপুটেশন দশগুণ বেশি মর্যাদাবান একইভাবে ৬৫ রেপুটেশনের চেয়ে ৫৫ রেপুটেশন ১০ গুণ কম মর্যাদাসম্পন্ন। ১ বেশি মানে ১০ গুণ এর বিষয়টি যোক্তিক নয় এই কারনে যা প্রকৃত মান থেকে বুঝা যাচ্ছে। আশা করি বুঝাতে পেরেছি।

আপনি কিভাবে রেপুটেশন বাড়াবেনঃ

এতক্ষণের আলোচনা থেকে নিশ্চয়ই বিষয়টি বোঝা সহজ হয়েছে রেপুটেশন এর ক্ষেত্রে শুধুমাত্র পোস্ট করাটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কমেন্ট করে এবং পোস্টের মাধ্যমে আপনি আপনার রেপুটেশন দ্রুত বাড়াতে পারবেন। আর এই কাজটি কেবলমাত্র তখনই করতে পারবেন যখন আপনার কনটেন্ট ভালো হবে এবং সেখানে আপনি ভালো ভালো ভোট পাবেন। তাই এক্ষেত্রে আপনি তিনটি কাজকে খুব গুরুত্ব দিতে পারেন

  • এক হচ্ছে কোয়ালিটি পোস্ট করা
  • দুই বেশি বেশি কোয়ালিটি কমেন্ট করা
  • এবং তিন ফলোয়ার বাড়ানোর চেষ্টা করা যাতে করে ভোট বেশি পেতে পারেন।

শেষকথাঃ

যদিও রিপিটেশন এর কোন অর্থনৈতিক মানদন্ড নয় তারপরও এটি কোন ইউজারের পারফরম্যান্স বোঝার জন্য সবচেয়ে ভালো একটি ইন্ডিকেটর আর এই কারনেই ইন্ডিকেটরটিকে নামের পাশে সবসময় দেখানো হয়। সময়ের সাথে সাথে আপনার রেপুটেশন বেড়ে যাবে। আপনি কেবল আপনার কন্টেন্ট এর কোয়ালিটি ও এঙ্গেজমেন্ট এর গুরুত্বদিন সাথে অন্যের পোস্ট পড়ে অর্থবহ কমেন্ট করেন।

রেপুটেশন সংক্রান্ত কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্টে জানাতে পারেন অথবা আমি কোন ভুল করে থাকলে সেটিও শুধরে দিতে পারেন। এডিট করে ঠিক করে দেব। কমিউনিটি উপকৃত হলেই এই পোস্টের সার্থকতা। ধন্যবাদ।

এই পোস্টটিকে পূর্নতা দিতে আমি আমার পূর্বের জ্ঞানের সাথে যে পোস্টে থেকে সহযোগিতা নিয়েছি আপনি চাইলে সেই পোস্টটিও ভিজিট করতে পারেন।


Line Break Steem.png

এই পোস্টের সম্পূর্ন লিখা আমার নিজস্ব ও কোথায় থেকে কপি করা হয়নি। কোথাও হতে কোন তথ্য বা ছবি নিয়ে থাকলে সোর্স দেয়া হয়েছে

Line Break Steem.png

আমি কে

আমি সাইফুল বাংলাদেশ থেকে। পেশায় শিক্ষক এবং সাবেক ব্যাংকার। পড়াশুনা করেছি প্রকৌশলবিদ্যায়। আমি আমার চিন্তাভাবনা এবং ধারণাগুলি ব্লগে শেয়ার করতে ভালবাসি। স্টিম এ ২০১৯ সাল থেকে নিয়মিত লিখালিখি করে আসছি। আমি টেক্সটাইল, অনলাইন অর্থ উপার্জন, কৃষি, প্রযুক্তি, রান্না, ও জীবন্ঘটিত অন্যান্য আরো কিছু বিষয় নিয়ে লিখি। প্রকৃতির পাশাপাশি যাওয়ার জন্য ঘুরে বেড়ানো এবং ক্রিকেট খেলা আমার শখ। আমি সর্বদা একজন শিক্ষানবিস এবং সবার থেকে শিখতে চাই। আমি বিশ্বাস করি, আমার জ্ঞান ও লিখা থেকে একজনও যদি উপকৃত হল বা নতুন কিছু শিখতে পারে তবেই আমার ব্লগে লিখালিখি সার্থক

Line Break Steem.png

Intro Steem.gif

ভোট দিন, মতামত থাকতে মন্তব্য করুন, পোস্টটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন এবং আমাকে ফলো করুন @engrsayful

Line Break Steem.png

অন্যান্য মিডিয়াতে আমার সাথে যুক্ত হতে পারেনঃ

Facebook Twitter Instagram
Youtube ThreeSpeak DTube


Amar Bangla Blog Logo.png



Comments 45